ভূমিকম্পে মূহুর্তেই ধসে গেল বিরাট বড় বিল্ডিং, সবাই শুধু তাকিয়েই দেখল

ভূমিকম্পের মাত্রা অধিক হওয়ার ফলে ক্ষয়ক্ষতি হয় প্রচুর। রাস্তা ঘাটে ফাটল, গাছ-পালা ভেঙে পরার পাশাপাশি ভেঙে চুরমার হয়ে যায় বড় বড় বিল্ডিং

এই পৃথিবীতে সবচেয়ে ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ ভূমিকম্প। পৃথিবীর যেই স্থানে ভূমিকম্প হানা দেয় সেখানে একেবারে তছনছ করে দেয় সব। বিভিন্ন জায়গা ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার পাশাপাশি মানুষেরও

ক্ষতি হয় ব্যাপক পরিমাণে। তবে, এটি সবসময়ের জন্য নয়। ভূমিকম্প কখনো হয় সর্বস্বান্ত, কখনো বা নিঃস্ব আবার কখনো মৃত। সম্প্রতি, ২০১৫ সালে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ভূমিকম্পের

মুখোমুখি হয়েছিল নেপাল। চোখের সামনে নিমেষের মধ্যে ধসে পড়ে মস্ত বড় সব বিল্ডিং! আর সেই ভিডিও এখন ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। আসলে ভূ-অভ্যন্তর অর্থাৎ

মাটির নিচে রয়েছে টেকটনিক প্লেট। যখন এই টেকটনিক প্লেট গুলি চলাফেরা করতে করতে একটির ওপর আরেকটি উঠে আসে বা দুটি টেকটনিক প্লেটের মধ্যে জোরে সংঘর্ষ হয় তখন

পৃথিবীপৃষ্ঠে সৃষ্ঠি হয় ভূমিকম্পের। আর মাঝেমধ্যেই ভূমিকম্প বিভিন্ন দেশে মহাপ্রলয় নিয়ে হাজির হয়। ভূমিকম্পের মাত্রা অধিক হওয়ার ফলে ক্ষয়ক্ষতি হয় প্রচুর। রাস্তা ঘাটে ফাটল, গাছ-পালা ভেঙে পরার পাশাপাশি

ভেঙে চুরমার হয়ে যায় বড় বড় বিল্ডিং! এমনকি মানুষও রেহাই পায়না এর হাত থেকে। প্রসঙ্গত, ঠিক এমনি ভয়ঙ্কর ভূমিকম্পের মুখোমুখি হয় নেপাল। দিনটা ছিল ২০১৫ সালে ২৫ এপ্রিল।

এদিন ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল প্রায় ৮.১। ভূমিকম্পের মাত্রা এতটাই তীব্র ছিল যে মাটি থেকে সমস্ত গাছ উপরে যাওয়ার সঙ্গে বড় বড় ফাটল ধরেছিল রাস্তায়। এছাড়া রাস্তার ধারে তৈরি সব অট্টালিকাও ভেঙে তছনছ হয়ে যায়।

এমনকি সেখানে উপস্থিত প্রায় সকল মানুষকেই এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়েছে। আশ্রয় নিতে রাস্তায় বেরোলে সেখানে ভেঙে পরে মস্ত বড় বড় সব বিল্ডিং। উল্লেখ্য, সেই সময়ের এই ঘটনা খুব কষ্টে ক্যামেরাবন্দি করে রেখেছিলেন কয়েকজন মানুষ। যাতে এই ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগের সাক্ষী হয়ে থাকে সকল মানুষ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন<<

Leave a Reply

Your email address will not be published.