তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থীর কাছে হারল নৌকা প্রার্থাী

“এলাম দেখলাম জয় করলাম’’ রোম সাম্রজ্যের সেনাপতি জুলিয়াস সিজারের বাণী এটি। সেই বাণীর মতোই মিল খুঁজে পাচ্ছেন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার

৬ নম্বর ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের ভোটাররা। অনেকটা আকস্মিকভাবে এলাকায় এসে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সবাইকে চমকে দিলেন তৃতীয় লিঙ্গের নজরুল ইসলাম ঋতু। রবিবার ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপের

ইউপি নির্বাচানে ৬ নম্বর ত্রিলোচনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন তৃতীয় লিঙ্গের নজরুল ইসলাম ঋতু। এই ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী ছিলেন নজরুল ইসলাম ছানা এবং পাখা প্রতিকের প্রার্থী মাহবুবুর রহমান। নির্বাচনী ফলাফলে

তৃতীয় লিঙ্গের নজরুল ইসলাম ঋতু আনারস প্রতীক নিয়ে ৯ হাজার ৫৫৭ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের নজরুল ইসলাম ছানা পেয়েছেন ৪ হাজার ৫২৯ ভোট।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আলমঙ্গীর হোসেন জানান প্রাথমিক তথ্য মতে তিনি এ তথ্য জেনেছেন। উক্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কালীগঞ্জবাসির দৃষ্টি ছিল ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের দিকে। সারাদিনব্যাপি সাধারণ মানুষ ও ভোটারদের মধ্যে

জল্পনা-কল্পনা চলতে থাকে কে হবেন ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান? অবশেষে ফলাফল ঘোষনার মাধ্যমে সাধারণ মানুষ ও ভোটারদের সেই জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটে। বিজয়ী চেয়ারম্যান ঋতু উপজেলার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের দাদপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের সন্তান। তার আরো তিন ভাই ও তিন বোন রয়েছে। তিন ভাই ঢাকাতে থাকেন এবং বোনেদের বিয়ে হয়ে গেছে।

জন্মের পর তৃতীয় লিঙ্গ প্রকাশ পাওয়ায় ৭ বছর বয়সে তাকে গ্রাম ছেড়ে ঢাকা চলে যেতে হয়। সামান্য লেখাপড়া করলেও সামাজিক নানা প্রতিবন্ধকতায় প্রাথমিকের গন্ডি পেরোনো হয়নি তার। তিনি ছোটবেলা থেকেই ঢাকার ডেমরা থানাতে তার দলের গুরুমার কাছেই বেড়ে উঠেন। উল্লেখ্য, দেশে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এই প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন তৃতীয় লিঙ্গের নজরুল ইসলাম ঋতু।

Leave a Reply

Your email address will not be published.