গন্ডারের বাচ্ছা চুরি করেছিল যুবক। মা গন্ডার এসে উদ্ধার করল ‍তার বাচ্ছাটিকে। গন্ডারের ভয়ে যুবক আশ্রয় নিলেন গাছের ডালে। ভাইরাল বিডিও

প্রকৃতি খুবই রহস্যময়।সৃষ্টির শুরুতে প্রকৃতি আদিম মানুষের অনুকূল ছিলো না। তারা এই প্রকৃতির সাথে

সংগ্রাম করে বেঁচে থাকত।ধীরে ধীরে মানুষ প্রকৃতিকে বশ মানিয়েছে।তার রসদে নিজের জীবনযাত্রাকে করছে সমৃদ্ধ। এরপর আদিম মানুষ প্রকৃতির

রহস্য উদঘাটনে মাতোয়ারা হয়ে পরে যা আজও চলমান।প্রকৃতি এখনও সবার কাছে রহস্যের চাদরে ঢাকা হয়ে আছে। শুরুর দিকে

সোশ্যাল মিডিয়া এতটা জনপ্রিয় ছিল না। সময়ের ব্যবধানে ও সোশ্যাল সাইট আরও উন্নত করার কারণে

মানুষের মাঝে এর ব্যবহার ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পায়। বর্তমান সময়ে মোটামুটি সবকিছুই এসব সোশ্যাল মিডিয়াতে পাওয়া যায়। যা কিছু কিছু

অনেক ভালো কিছু আবার বিপদজনক মোটকথা সকল ধরনের সংবাদ, পরিস্থিতি এবং সামাজিক অবস্থা সবকিছুই আমরা এর মাধ্যমে জানতে পারি।  বর্তমান সময়ে মানুষের জীবনের উপর একটি প্রভাব ফেলেছে এ সোশল মিডিয়া। সোশ্যাল মিডিয়ার সহজলভ্য হওয়ার কারণে খুব সহজে জানতে পারি বিশ্বের কোথায় কি হচ্ছে। কোন কাজটি ভালো এবং কোন কাজটি মানব স্বার্থের ঊর্ধ্বে যাচ্ছে।বর্তমানে মানুষ ভাইরাল ভাইরাল হওয়ার জন্য অনেক পন্থা অবলম্বন করে।

যার মধ্যে কিছু বিনোদন দেয় আবার আবার কিছু বিপদজনক হয়ে থাকে। প্রাণ সংশয় হওয়ার ভয় থাকে কিন্তু এ ভাইরাল হওয়া প্রবণতা মানুষকে এই সকল দিক থেকে ফেরাতে পারছে না। মোটকথা সবার ধারণা ভাইরাল হতে পারলেই হয়তো সে সবকিছু অর্জন করে ফেলবে। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কিছু কিছু ক্ষেত্রে

তাদের প্রাণ সংশয় পর্যন্ত হয়ে থাকে এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয় কিছুদিন আগে।এই ভিডিওটিতে দেখা যায় গন্ডর এবং মানুষের লড়াই। আফ্রিকার একটি বিশাল বড় জঙ্গলে একদল গন্ডার এবং এক জন যুবক ছিল। সেই জঙ্গলের গন্ডারের খুব খিদে পেয়েছিল। তখন একদল গন্ডার দেখতে পায় যুবকে খাওয়ার জন্য নানা ফন্দি বের করল।কিন্তু যুবক গুলা ছিল খুবই শক্তিশালী।

তারা তাদের বাচ্চাকে কোনমতেই গন্ডারের আহরণ করতে দিল না। গন্ডারের টি যখন যুবক খেতে আসে তখন যুবরকন এর সাথে লড়াই করে বাধা দেয়। কিন্তু রাক্ষস গন্ডার কোনমতেই যুবকটিকে না খেয়ে যেতে চায়না।তখন গন্ডার তার দল নিয়ে আসলো এবং যুবকে দের দাওয়া করল। অপরদিকে গন্ডার ও তার দলকে নিয়ে আসলো। গন্ডার এবংযুবকেরর শুরু হয়ে গেল লড়াই লড়াই করতে করতে গন্ডা কে হারিয়ে দিলো।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*