‘বাস্তবে ধর্মীয়বিধি না মানলেও নারীদের সাথে সম্পত্তি ভাগের সময় সকলেই ধর্মীয় নিয়মের কথা বলেন’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাস্তব জীবনে ধর্মীয়বিধি না মানলেও

নারীদের সাথে সম্পত্তি ভাগের সময় সকলেই ধর্মীয় নিয়মের কথা বলেন যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স সফর নিয়ে আজ বুধবার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে

আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। পৈতৃক সম্পত্তিতে মেয়েদের সমান অধিকারের জন্য শরীয়াহ আইন পরিবর্তন না করে

উত্তরাধিকার আইন সংশোধন করে কীভাবে ছেলে মেয়েদের সমান অধিকার দেয়া যায় এমন এক বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন,

মানুষ অনেকসময় সম্পত্তির জন্য অন্ধ হয়ে যায়। বাবার মৃত্যুর আগেই চাচারা এসে সম্পত্তি দখল নিতে উঠে পড়ে লেগে যায়। সেজন্য দাদার সম্পত্তিতে সবার ভাগ থাকবে কিন্তু

বাবার উপার্জিত সম্পত্তিতে অন্তত মেয়েদের সমান অধিকার থাকা জরুরি। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ছেলে- মেয়ে ও তৃতীয় লিঙ্গের জন্য সম্পত্তিতে সমান অধিকারের বিষয়টি নিশ্চিতের ব্যপারে আমরা কাজ করছি। সম্পত্তি আইনে আছে পৈতৃক সম্পত্তিতে তাদের অধিকার থাকবে। কিন্তু

বাস্তবতা হচ্ছে, ধর্মীয়বিধি না মানলেও নারীদের সাথে সম্পত্তি ভাগের সময় সকলেই ধর্মীয় নিয়মের কথা বলেন। শরীয়াহ মোতাবেক আমি বিভিন্নজনকে বলেছি, এই সম্পত্তির ব্যপারে একটি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ৩১ অক্টোবর থেকে ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত গ্লাসগো, লন্ডন ও প্যারিসে সরকারি সফরকালে বিশ্বনেতাদের কপ২৬ জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলন, বাংলাদেশ বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন ২০২১, ইউনেসকো সদর দপ্তরে সৃজনশীল অর্থনীতির জন্য ইউনেসকো-বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান, ইউনেসকোর ৪১তম সাধারণ সম্মেলন, প্যারিস শান্তি ফোরাম, ইউনেসকোর ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং অন্যান্য উচ্চ পর্যায়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.