নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে ধরা পড়ল দৈত্যাকার ইঁদুর

এত বড় ইঁদুর সম্ভব নাকি দূর থেকে দেখে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন পরিষ্কার কর্মীরা। তার পরও

তারা যা দেখলেন তাতে হা হয়ে যেতে হয়। একটি দৈত্যাকার ইঁদুর বসে রয়েছে নর্দমার পানির উপর। বিরাট আকারের ইঁদুর। ভয়ে হাঁটু কাঁপতে শুরু করেছিল পরিষ্কার কর্মীদের। তবে

শেষমেশ সেই ইঁদুরটিকে নর্দমা থেকে টেনে বাইরে আনা হয়। তার পরই পুরো ব্যাপারটা পরিষ্কার হয়। দেখতে অবিকল আসল ইঁদুরের মতো হলেও সেটি আদতে আসল নয়। নকল ইঁদুর। তবে

দেখে সেটা বোঝার বিন্দুমাত্র উপায় নেই। এত অসাধারণ হাতের কাজ। সম্প্রতি মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটিতে ঘটে এই ঘটনা। সেখানে একটি নালা পরিষ্কার করতে গিয়ে

বিশালাকার ইঁদুরটিকে দেখতে পান পরিষ্কার কর্মীরা। এত বড় ইঁদুর দেকে প্রথমে চোখ ছানাবড়া হয়ে যায় সবার। নালা থেকে শেষ পর্যন্ত ইঁদুরটিকে বের করেন তারা। জানা যায়,

কাপড় ও তুলো দিয়ে কেউ তৈরি করেছিল সেই ইঁদুর। হ্যালোউইন-এর জন্য সেই দৈত্যাকার ইঁদুর বানানো হয়েছিল। এর পর সেটিকে ফেলে দেয়া হয়। কোনোভাবে সেই বিরাট ইঁদুর এসে আটকে যায় নর্দমার ওই অংশে। যার ফলে

ওই নর্দমার নিস্কাশন ব্যবস্থার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। ইঁদুরটিকে রাস্তার উপর রেখে পানি দিয়ে পরিষ্কার করেন কর্মীরা। সেই বিরাট ইঁদুর দেখতে ভিড় জমে যায়। অনেকেই সেই ইঁদুরের ছবি শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

অনেকেই বলেছন, দেখে বোঝার উপায় নেই যে এটা নকল ইঁদুর। এরই মধ্যে জানা যায়, একজন মহিলা সেই ইঁদুরটি নিজের বলে দাবি করেছেন। ইঁদুরটি তিনি বানিয়েছেন বলে দাবি করেছেন।

তিনি জানান, ইঁদুরটি তিনি ফেলেননি। হারিয়ে গিয়েছিল। লোপেজ নামের সেই মহিলা দাবি করেছেন, বছরখানেক আগে বানানো সেই ইঁদুর একদিন নর্দমায় পড়ে যায়। তার পর বৃষ্টির জলে সেটি ভেসে যায়। এরপর একাধিকবার কর্তৃপক্ষকে নালা পরিষ্কারের আবেদন করলেও কেউ আসেনি। সূত্র: জি নিউজ

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন<<

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *