ভাল ছেলেদের প্রেমিকা না থাকার ১১টি কারণ; ৮ নং কারণ বেশি দায়ী!

ছেলেটার ব্য’ক্তিত্ব আ’ছে। কত সুন্দর করে ক’থা ব’লে। নম্র, ভদ্র, সদাচারী। পড়াশু’নায় খুবই সিরিয়াস। ক্যারিয়ার স’চেতন সে। টিউশনি করে

পড়াশু’না করছে, সংগ্রামী জীবন। মা-বা’বাকে সে এখন থেকেই দেখাশু’না করে। কাজে’র ক্ষেত্রেও দক্ষ ও

পারদর্শী, স’ময়ানুবর্তী। একসা’থে এতকিছু সামলাতে পারে সে। সক’ল ব’ন্ধুই ভালবাসে তাকে। এরপ’রও

এই ভাল ছেলেটার ভাগ্যে প্রেম জোটেনি। অথবা, ক্ষণিক মুগ্ধতায় কোন প্রে’মিকা এসেও স্থা’য়ী হয়নি। হা’রিয়ে গেছে। তারপর

হৃদয় ভা’ঙার গো’পন য’ন্ত্রণা বয়ে নিয়ে বেড়ায় এই ‘ভাল’ ছেলেরা। অথচ আ’ত্মীয়-স্বজ’ন বা ব’ন্ধুরা এই ভাল ছেলেটার জ’ন্য একটা লক্ষ্মী বউ প্র’ত্যাশা ক’রতেই পারে। কিন্তু

বাস্তবে কি তাই ঘ’টে? এমন কেন হয়? আসুন জে’নে নেই- ১। ভা’লো ছেলেরা ‘বোরিং’ হয়: মে’য়েদের একটা চিরকালের আ’গ্রহ আ’ছে একটু খা’রাপ বা

দুষ্টু ছেলেদের প্র’তি। এমন ছেলেদের প্রে’মিকা হওয়াকে মে’য়েদের কাছে একটা চ্যালেঞ্জ মনে হয়। অন্যদিকে ভাল ছেলেদেরকে

তাঁদের চোখে মনে হয় “বোরিং”। ২। মায়ের ক’থা মেনে চ’লে: বেশিরভাগ ভাল ছেলে মায়ের ক’থা খুব শোনে। বা’বা-মায়ের পছন্দ ছা’ড়া বি’য়ে করবো না, কিংবা

স’ব সিধান্তে মাকে শামি’ল করে তারা। এই ব্যা’পারটা বেশিরভাগ মে’য়ে পছন্দ করে না। ৩। তারা ছলক’লা বোঝে না: প্রেম ক’রতে ও

কোন মে’য়েকে প্রেমে ফেলতে গেলে একটু কৌশল, একটু ছলক’লা জানতেই হয়। বলাই বাহুল্য যে ভা’লো ছেলেরা এস’ব থেকে একশ’ হাত দূ’রে থাকেন এবং এগুলো বোঝেনও না।

৪। গায়ে পড়া স্বভাব নেই: ভা’লো ছেলেরা শুধু মে’য়ে কেন, কারো সা’থেই গায়ে প’ড়ে আলাপ ক’রতে পারেন না। এমনকি কেউ আলাপ ক’রতে এলেও অনেকেই নিজে’র মাঝে গুটিয়ে থাকেন। ফলে তাঁদের প’রিচিত মা’নুষের প’রিধি হয় অনেক কম। আর মে’য়েদের সা’থে প’রিচয়ও হয় কম।

৫। শুরুতেই সিরিয়াস হয়ে যায়: কারো সা’থে প্রথম প্রথম ডেটিং-এই এই ধ’রণের ছেলেরা খুব বেশী সিরিয়াস হয়ে যায়। মে’য়েটির ও’প’রে অধিকার ফলাতে থাকে। আর এটাই স’ম্প’র্কটাকে সামনে এগোতে বাঁ’ধা দেয়।

৬। প্র’চণ্ড আবেগী হয়: বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ভা’লো ছেলেরা হয় প্র’চণ্ড আবেগী ও স্প’র্শকাতর। এরা খুব অ’ভিমা’নী স্বভাবেরও হয়। তাই তুচ্ছ কারণে এদের স’ম্প’র্ক ভাঙে এবং নতুন স’ম্প’র্ক হয় না।

৭। খা’রাপ মে’য়েদের খপ্প’রে প’ড়ে: বেশিরভাগ ভা’লো ছেলেই সত্য ও মি’থ্যার মাঝে পার্থক্য বুঝতে পারে না। ফলে তারা সুবি’ধালোভী কিছু খা’রাপ মে’য়েদের খপ্প’ড়ে প’ড়ে এবং অন্য মে’য়েদের উপ’র থেকেও বি’শ্বা’স হা’রিয়ে ফে’লে।

৮। মি’থ্যা বলতে পারে না: প্রেমের স’ম্প’র্কে টুকটাক নির্দোষ মি’থ্যা থাকেই। নিজে’র স’ম্প’র্কে একটু বা’ড়িয়ে বলা, নিজেকে একটু হিরো সাজিয়ে উ’পস্থাপন করা ইত্যাদি ভা’লো ছেলেরা পারেই না একদ’ম। ফলে মে’য়েরাও পটে না স’হজে।

৯। স’ম্প’র্কভীতি কাজ করে: প্রেম করলে কী হবে? যদি বি’য়ে না ক’রতে পা’রি? বাসায় জানলে কী হবে? কীভাবে প্রপোজ করবো? স’ম্প’র্ক নিয়ে ইত্যাদি হরেক রকম ভীতি কাজ করে অনেকের মনেই। আর এর ফলে তাঁদের প্রেম করাটাই হয়ে ওঠে না।

১০। ব্য’ক্তিত্বের অহমিকা: কোন মে’য়েকে প্রপোজ করা বা তার মন জয় ক’রতে দীর্ঘদিন লে’গে থাকাকে ব্য’ক্তিত্ববান ভাল ছেলেরা পছন্দ করেন না। কোন মে’য়ে সামা’ন্য অবজ্ঞা করলেই তারা আর অগ্রসর হন না। প্রেমের জ’ন্য নিজে’র ব্য’ক্তিত্বকে ছোট ক’রতে চান না তারা। অনেক স’ময় কোন মে’য়ের ইতিবাচক উপেক্ষাকেও বুঝতে পারেন না তারা।

১১। ক্যারিয়ার নিয়ে বেশী স’চেতন: বেশিরভাগ ভা’লো ছেলেই নিজে’র লেখাপড়া ও ক্যারিয়ার নিয়ে খুব ব্যস্ত থাকেন। আর এই স’বের মাঝেই হা’রিয়ে যায় প্রেম ও অন্যান্য ব্যা’পার। যখন বুঝতে পারেন, ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে।

অতএব, ভাল ছেলেরা যদি ক্যারিয়ার চান তো সেটা নিয়ে থাকাই তাদের জ’ন্য মঙ্গলজ’নক। প্রেমের দিকে মন দিলে তাদের ক্যারিয়ারের ক্ষ’তি হওয়ার স’ম্ভাবনা অনেক। আর যদি প্রেমে সাফল্য চান, তবে উপ’রের ১১টা বি’ষয়ে স’চেতন থেকে নিজেকে বদলাতেই হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.