পাকিস্তান ম্যাচে ভাইরাল ওই তরুণীর পরিচয় মিললো

সাদা টিশার্ট। তার উপর ছোট করে পাকিস্তানের পতাকা আঁকা। সিডনিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পাকিস্তান এবং

নিউজিল্যান্ডের খেলা চলাকালীন সকলের নজর কেড়েছিলেন এক তরুণী। স্টেডিয়ামের দিকে ক্যামেরা ঘুরতেই তাঁকে দেখা গেল। তিনি যে পাকিস্তানি সমর্থক, তা তার টিশার্টে আঁকা পতাকা দেখেই বোঝা গিয়েছিল। কিন্তু

সে দিন থেকেই ওই তরুণী হয়ে উঠেছেন ‘মিস্ট্রি গার্ল’! সুন্দরী ওই তরুণীর ছবি ভাইরাল হতেই তাঁরই খোঁজে তোলপাড় সমাজমাধ্যম। গত ৯ নভেম্বর পাকিস্তানের সঙ্গে

নিউজিল্যান্ডের সেমিফাইনাল ম্যাচ ছিল। সেই ম্যাচেই ক্যামেরায় বার বার ধরা পড়েছিলেন ওই তরুণী। সেমিফাইনালে কিউয়িদের হারাতেই স্টেডিয়াম থেকে

পাকিস্তান ক্রিকেটারদের দিকে চুম্বন ছুড়ে দিতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। গত কয়েক দিন ধরে খোঁজ চালিয়ে তরুণীর নাম প্রকাশ্যে এসেছে। তাঁর নাম নাতাশা। বিভিন্ন সূত্রে দাবি করা হচ্ছে,

নাতাশা পাক বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক। থাকেন মেলবোর্নে। এখানেই তাঁর জন্ম। শৈশবও কেটেছে এই মেলবোর্নেই। ভাইরাল এই তরুণী তাঁর ইনস্টাগ্রাম বায়োতে নিজেকে

‘অস্ট্রেলিয়ান পঞ্জাবান’ বলে পরিচয় দিয়েছেন। নাতাশা তাঁর ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে দাবি করেছেন, ভ্রমণ করাই তাঁর শখ। বস্টওয়ানা এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বহু ছবি নিজের ইনস্টা অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন নাতাশা। সিডনিতে ভাইরাল হওয়ার পর

তাঁর নামে একাধিক ভুয়ো অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়েছে বলে দাবি নাতাশার। বিষয়টি নিয়ে তাঁর অনুগামীদের সতর্কও করেছেন এই ভাইরাল তরুণী। পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠার পর নাতাশা টুইট করেন, “ফাইনালে ভারত-পাকিস্তানকে দেখতে চাই।” কিন্তু

বৃহস্পতিবারই সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে ভারত। সিডনিতে ভাইরাল হওয়ার পর সে দিন ম্যাচ শেষে স্থানীয় বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম নাতাশাকে প্রশ্ন করেছিল,

তাঁর প্রিয় বোলার কে? তখন তিনি জানিয়েছিলেন, নাসিম শাহ তাঁর প্রিয় বোলার। ভাইরাল হওয়ার আগে পর্যন্ত নাতাশার ইনস্টাগ্রাম অনুরাগীর সংখ্যা ছিল ১,৫০০। কিন্তু ভাইরাল হতেই সেই সংখ্যা এক লাফে ৩৫,০০০ পৌঁছেছে।

টি২০ বিশ্বকাপে ফাইনাল পর্যন্ত যা যা ঘটল, তা ১৯৯২ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের পুনঃপ্রচার বললে ভুল হবে না। ১৯৯২ বিশ্বকাপের ফাইনালে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ইংল্যান্ডকে হারিয়েই বিশ্বকাপ জিতেছিল ইমরান খানের পাকিস্তান। সেই প্রথম বার। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতের ১০ উইকেটে বিধ্বস্ত হওয়ায় নিশ্চিত হয় ফাইনালে আর ভারত–পাকিস্তান হচ্ছে না। তার জায়গায় ফিরছে তিন দশক আগের স্মৃতি।

সেই সূত্রেই আবার চর্চায় ফিরছেন ‘মিস্ট্রি গার্ল’। আবার কি দেখা যাবে তাঁকে? প্রশ্নের উত্তর পেতে অপেক্ষা করতে হবে। প্রিয় বোলার নাসিম শাহের বোলিং দেখতে গ্যালারিতে উপস্থিত থাকতে পারেন ‘মিস্ট্রি গার্ল’। জমজমাট ফাইনালে বাড়তি রং যোগ হতে পারে। সুত্র: আনন্দবাজার

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *