আটকা পড়া পর্যটকদের কক্সবাজার জেলা পুলিশের সাথে যোগাযোগে আহ্বান

ধর্মঘটের কারণে কক্সকাজারে পর্যটকদের কক্সবাজার জেলা পুলিশের সাথে

যোগাযোগ করার জন্য আহ্বান করা হয়েছে। ভাড়া ছাড়া পর্যটকদের চট্টগ্রাম জেলায় পৌঁছে দেবে পুলিশ। হঠাৎ করে গণপরিবহন ও

দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পর্যটন শহর কক্সবাজারে বেড়াতে এসে প্রায় ২০ হাজার পর্যটক আটকা পড়েছেন। এসব পর্যটক গত বৃহস্পতি ও

শুক্রবার ভোরে কক্সবাজারে বেড়াতে এসেছিলেন। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় তারা নিজ গন্তব্যে ফিরতে পারেননি। কিন্তু

পর্যটকদের চট্টগ্রাম পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কক্সবাজার জেলা পুলিশ। শনিবার (৬ নভেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি জানান,

দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কক্সবাজারে বেড়াতে এসে আটকা পড়েছেন প্রায় ২০ হাজার পর্যটক। যার ফলে

বড় ধরনের ক্ষতিরমুখে পড়েছেন পর্যটকরা। সে বিবেচনায় নিজস্ব পরিবহনে পর্যটকদের ঢাকার উদ্দেশে চট্টগ্রাম পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ প্রশাসন।

তিনি আরও জানান, ইতোমধ্যে পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের মাধ্যমে এ খবর পর্যটকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। হয়তো বিকেল থেকেই এ কার্যক্রম শুরু হবে। তবে এ বাসগুলোতে কোনো ভাড়ার প্রয়োজন হবে না।

অনেক পর্যটক অতিরিক্ত ভাড়ায় উড়োজাহাজে কক্সবাজার ত্যাগ করেছেন। যাদের সেই সামর্থ্য নেই তারা ছোট যানবাহনে কক্সবাজার ছাড়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন। কিন্তু অন্য সময়ের চেয়ে ভাড়া দুই-তিনগুণ হওয়ায় তারা কক্সবাজার ত্যাগ করতে পারছেন না বলে জানান তিনি।

সাপ্তাহিক ছুটির দিন হিসেবে বৃহস্পতি-শুক্র ও শনিবার হাতে রেখে কক্সবাজার আসেন লাখো পর্যটক। অনেকেই কক্সবাজার এসেছেন বৃহস্পতিবার। আবার শুক্রবার ভোরেও পৌঁছান অনেকে।

যারা শুক্রবার ফিরে যাওয়ার শিডিউলে ছিলেন তারা এসেছিলেন আরও কয়েক দিন আগে। এ রকম পর্যটক ২০ হাজার হবে বলে হোটেল সংশ্লিষ্টরা জানান। বাস চলাচল বন্ধ থাকায় তারা নির্ধারিত সময়ে কক্সবাজার ছেড়ে যেতে পারেননি।

জানা গেছে, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে শুক্রবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য গণপরিবহন, মালবাহী ট্রাক ও দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধের ঘোষণা দেয় পরিবহন সংগঠনের নেতারা। যার প্রভাব পড়েছে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.