হাতে চুড়ি পরনে শাড়ি বাঙালী কন্যা ঘোরায় চড়ে যাচ্ছেন রাস্তা দিয়ে যেন রাজ কুমারি, সবাই তাকিয়ে দেখছেন, তুমুল ভাইরাল ভিডিও!

প্রায় সময় দেখা যায় ঘোড়া নিয়ে ছুটে বেড়ায় অনেক ছেলে মানুষেরা। সাধারণত ছেলেরা ঘোড়া ছুটতে পছন্দ করে। ছেলেরা এই কাজটা করে থাকে সব সময়। কিন্তু

এই কাজটিকে ভুল প্রমান করে দিল একটি নারী সে মেয়ে হয়েও সুন্দর করে ছেলেদের মত করে ঘোড়া নিয়ে ছুটে বেড়াচ্ছে গ্রামের মেঠো পথে। তাকে দেখে

বোঝার উপায় নেই সে একজন সাধারন মেয়ে সে ছেলেদের থেকেও ভালো পারদর্শিতার সাথে তার ঘোড়াটিকে নিয়ে বেরিয়ে পড়েছে এক অজানা দিগন্তে। একটি মেয়ে যে

কিনা হাতে চুরি শাড়ি পড়ে সাজগোজ করে গ্রামের পথ দিয়ে ঘোড়া চালিয়ে বেড়াচ্ছে। তার এমন দৃশ্য দেখে কয়েক যুগ আগের রানী বা

রাজকুমারীদের কথা স্মরণ করে দেয় সকলকে। সে গ্রামের আঁকাবাঁকা পথ ঘোড়ায় চড়ে পাড়ি দিয়ে।তার ঘোড়া নিয়ে সে শহরের দিকে রওনা হয়। তার এমন ঘোড়ায় চড়ার দৃশ্যটি দেখে

বোঝা যাচ্ছে যে কোন এক দেশের রাজকুমারী রাস্তা দিয়ে তার ঘোড়া ছুটে চলছে নীল দিগন্তে। তার বোধহয় জানা নেই সে কোথায় ছুটে নিয়ে যাবে তার প্রিয় ঘোড়া। মেয়েটি পরিপাটি হয়ে ঠিক ছেলেদের মত করে কার ঘোড়া নিয়ে

ছুটছে গ্রাম পেরিয়ে এই শহরে শহরের রাস্তা দিয়ে তার ঘোড়াটিকে নিয়ে ছুটে চলছে। তার ঘোড়া চালানোর দক্ষতা দেখে মনে হচ্ছে সে খুবই পারদর্শী ঘোড়া চালাতে। আগের

যুগের রাজকুমারী দের মত করে সে তার ঘোড়া কে নিয়ে চলছে। তার সাজগোজের ধরনটাও ছিল আগের যুগের রাজকুমারী দের মত। তার এরকম রূপের এবং গুণের ধরন দেখে রাস্তার সকলে তার দিকে তাকিয়ে আছে।

সে মেয়েটিকে আর ঘোড়া কে নিয়ে ছুটে চলছে গ্রামের পর গ্রাম তার মধ্যে দেখা যাচ্ছে না কোন ক্লান্তভাব। সে ক্লান্তহীন ভাবেই পাড়ি জমাচ্ছে সকল গ্রামে সে গ্রামের আনাচে-কানাচে গুলোতে তার ঘোড়া নিয়ে ঘুরছে। সে ছুটে চলছে তার ঘোড়া কে নিয়ে। সে যেন এক গন্তব্যহীন বালিকার মতো ছুটে বেড়াচ্ছে তার আপন মনে। যেখানে তার চোখ যাচ্ছে সে যেন সেখানেই তার ঘোড়া কে নিয়ে ছুটে চলছে। সে তার ঘোড়াটিকে দ্রুত এবং ধীর গতিতে ছুটিয়ে চলে নিয়ে যাচ্ছে গ্রামের আঁকাবাঁকা পথে।

মেয়েটি তার ঘোড়ায় ছড়ার এই অনুভূতি টিকে যেন বারবার উপভোগ করছে। সে উৎসাহিত হয়ে ঘোড়া নিয়ে ছুটে বেড়াচ্ছে সকল স্থানে। আগেকার যুগের রাজকুমারী রা যেভাবে করে ঘোরা চালাতে পারদর্শী ছিল সেই মেয়েটির এমন ভাবে ঘোড়া চালাচ্ছিল।

তার ঘোড়া চালানোর ধরন দেখে বোঝা যাচ্ছিল সে ঘোড়া চালাতে কতটা পারদর্শিতা অর্জন করেছে তার চোখে-মুখে ফুটে উঠেছে সে কতটা পারদর্শী এই ঘোড়া চালাতে। সে কোন ধরনের ভুল না করেই তার ঘোড়াটিকে নিয়ে আপন মনে ছুটে চলে। তার ঘোড়া চালানোর মধ্যে কোন ধরনের অপারকতা লক্ষ্য করা যায় না। সে অত্যন্ত পারদর্শিতার সাথে তার ঘোড়াটিকে নিয়ে ছুটে চলে।

ঘোড়াটিকে নিয়ে ছুটে চলার এক সময় সে তার ঘোড়া নিয়ে একটি জায়গায় থামালো সেখানে সে তার ঘোড়া নিয়ে সে বিভিন্ন ধরনের স্টান্ট তৈরি করে দেখাচ্ছে। সে তার ঘোড়া দিয়ে বিভিন্ন ধরনের স্টান্ট করে দেখাচ্ছে এবং স্টান্ট শেষ করা হয়ে গেছে সে তার ঘোড়া দ্রুত গতিতে হাঁকিয়ে নিয়ে গ্রাম ছেড়ে শহরের দিকে নিয়ে গেল। সে প্রবল গতি নিয়ে তার গ্রাম ছেড়ে শহরের দিকে রওনা হলো।

সে তার ঘোড়া চালাতে চালাতে শহরের দিকে চলে আসে।শহরের রাস্তায় তার ঘোড়াটিকে দেখতে অনেকটা অদ্ভুত লাগছিল। শহরের গাড়িগুলো পাশাপাশি দিয়ে মেয়েটি তার নিয়ে ছুটছে একদিকে শহরের রাস্তায় গাড়ি গুলো ছুটছিল তার সাথে সাথে ছুটছে সেই মেয়েটি তার ঘোড়া নিয়ে। ব্যাপারটা অন্যরকম সুন্দর লাগছে রাস্তায় থাকা প্রায় প্রত্যেকটি মানুষ সে মেয়েটির দিকে হা করে তাকিয়ে ছিল মেয়েটিকে দেখতে পুরো বাঙালি রাজকুমারী দের মত লাগছে।

বিস্তারিত ভিডিওতে দেখুনঃ

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *