অল্প ব’য়সী ছেলেরা কেন বিয়ে পা’গল হয়, জেনে নিন

মা-বাবার আদরের ছেলেটি এখন বিয়ের জন্য ঘর ভা’ঙচুর করে, বিয়ের জন্য মা-বাবাকে

হু’মকি দিয়ে থাকে বিয়ে না করালে সে ম’রে যাবে, মা বাবা আদরের স’ন্তানটিকে একটি স্মার্টফোন কিনে দেয়,

সেই স্মার্টফোন দিয়ে কি করে সেটা কখনো জানার চেষ্টা করে না বাবা-মা। বন্ধুদের কাছ থেকে মে’য়েদের নাম্বার নিয়ে কল দিয়ে

মে’য়ে পটাতে না পেরে, মে’য়েকে ভালো লাগার পরে সেখান থেকে ভালোবাসার ব্যর্থ হলেও

তারা বিয়ে পা’গল হয়ে যায়। আবার ভালোবাসার মানুষটিকে অন্য কোথাও বিয়ের কথাবার্তা চলছে সেখানে ভালবাসার মানুষকে

হা’রানোর জন্য বিয়ে করতে চাই অনেক অল্প ব’য়সী ছেলেরা। স্মার্টফোন দিয়ে তারা যেটা করে থাকে ডিজিটাল যুগে নেট ব্যবহার করে তারা কিছু অসামাজিক সাইট গুলো ভিজিট করে, এগুলো

দেখে তাদের উ’ত্তেজনা বেড়ে যায় রাতের বেলায় ঘুম আসে’না উল্টাপাল্টা স্বপ্ন দেখে কাউকে বলতে পারেনা কিন্তু

তারা এখন বিয়ে পা’গল। শ’রীরও তরতাজা হয়ে ওঠে। তবে স্পা কিন্তু ম’হিলা ও পুরু’ষ উভ’য়েই করতে পারেন। নিউ নর্ম্যাল জীবনে মা’নসিক চা’প বেড়েছে অনেকটাই। সেই চা’প কা’টাতেও পার্লারের মতো ‘রিল্যাক্সিং স্পা’ করতে পারেন বাড়িতেই।

ঘরেই মিলবে স্পা-এর আরাম:নিজের জন্য ২ ঘণ্টা সময় বের করে নিতে হবে। ফোন বন্ধ করে রাখু’ন। প্রয়োজনে বাড়ির সদস্যদের জানিয়ে দিন, যাতে আপনাকে এ সময় কেউ বির’ক্ত না করে।

আধ বালতি ঈষদুষ্ণ গরম পানিতে এক চামচ বাথ সল্ট বা না থাকলে এক চামচ নুন দিয়ে পা ডুবিয়ে বসে থাকুন মিনিট ১০-১৫৷ সারা দিন দাঁড়িয়ে, বসে, ঝুঁকে হাজারো কাজ করে পায়ে যে ব্য’থা হয়েছে তাতে একটু হলেও প্রলেপ পড়বে৷

ইচ্ছে হলে সাবান ও ব্রাশ দিয়ে ঘষে পা একটু পরিষ্কারও করে নিতে পারেন৷ ব্য’থার জায়গাগুলো আলতো করে ম্যাসাজ করা যেতে পারে।বাথটব থাকলে তো কথাই নেই, উষ্ণ জলে ফোম বাথ নিতে পারবেন। নইলে উষ্ণ ধারার গোসল করুন৷ শ’রীরের সব পেশি-সন্ধি ‘রিল্যাক্সড’ হবে।

বসে কাজ করার জন্য ঘাড় ও কোম’রে ব্য’থা হলে সে সব জায়গা দিয়ে গরম পানি বয়ে যেতে দিন একটু বেশি সময় ধরে৷ ব্য’থা অনেকটাই কমবে৷ লুফা ও সুগন্ধি সাবানে ঘষে গা পরিষ্কার করতে হবে। মরা কোষ উঠে যাবে। ত্বক ঝকঝকে হয়ে উঠবে৷ সুগন্ধে মনও তরতাজা হয়ে উঠবে।

বালতির পানিতে সুগন্ধি বাথ সল্ট মিশিয়েও ব্যবহার করতে পারেন। না থাকলে সাধারণ নুন মিশিয়ে নিন। খসখসে ত্বকে পানি বেশিক্ষণ ধরে রাখতে নুনের ভূমিকা রয়েছে।

পরিষ্কার নরম তোয়ালেতে গা মুছে ক্রিম বা ময়েশ্চারাইজার লাগান ভাল করে ঘষে ঘষে। ম্যাসাজের আরাম যেমন হবে, ত্বকও হবে নরম।• ঢিলেঢালা সুতির পোশাক পরে শুয়ে পড়ুন। চোখে-মুখে চা’পা দিন ঠান্ডা গোলাপ জলে ভেজানো তুলো। গরম হয়ে গেলে আবার ভিজিয়ে নিন৷ ৫-১০ মিনিট শুয়ে থাকুন।

ইচ্ছে হলে ফ্রিজে রাখা ঠান্ডা শশার রস মুখে লাগিয়ে রাখু’ন খানিক ক্ষণ। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন ঠান্ডা পানির ঝাপটায়।ত্বক শুকনো লাগলে একটু ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে পারেন।

এর পর একটু ঘুম নয়তো পছন্দের পানীয় বা ফলের রসে চুমুক দিতে দিতে বই পড়া বা গান শোনা৷ ব্যস৷তাই চিন্তার কোনও কারণ নেই৷ ক’রোনা আবহে বাড়িতেই মন ভাল রাখতে পারবেন স্পায়ের মাধ্যমে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.