র‍্যাব কর্মকর্তারা বলেন, আপনার ওপর আমরা হ্যাপি। আপনি সত্যি কথা বলেছেন: চিত্রনায়ক ইমন

প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মঙ্গলবার রাত ১১ টা ১৫ মিনিটে র‍্যাব সদর দপ্তর থেকে

বের হয়েছেন চিত্রনায়ক ইমন। এর আগে বিকেল ৫টা ৫০ মিনিটের দিকে র‍্যাব সদর দপ্তর থেকে

জানানো হয়, অডিও ফাঁস সংক্রান্ত বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদে ইমন র‍্যাব সদর দপ্তরে রয়েছেন। সেখান

থেকে বের হয়ে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ইমন কথা বলেছেন গণমাধ্যমের সঙ্গে। ইমন বলেন, ‘র‍্যাবের অফিসে গিয়েছিলাম। উনারা আমার সঙ্গে

কথা বলেছেন। উনারা বলেছেন- ইস্যুটা তো অনেক বড়, একজন প্রতিন্ত্রীর পদত্যাগ করেছেন। সরকারের এত বড় একটা জায়গা থেকে

তথ্য ফাঁস হয়ে গেল। আপনি কি ছাড়ছেন? ‘এইসব নিয়ে আমার সঙ্গে কথাবার্তা বলছে। আমি তাদের

যা সত্য তা-ই বলেছি। আমার কথা যাচাইয়ের জন্য তারা দীর্ঘ সময় আমার মোবাইল ফোনটি নিয়ে

পরীক্ষা-নীরিক্ষা করেন। আমি যখন বের হইছি, তারা বলেছেন- আপনার ওপর আমরা হ্যাপি। আপনি সত্যি কথা বলেছেন।

‘সব চেক করে তারা বলেছেন- আপনি রাইট। আপনি ক্লিন। আর উনারা নিশ্চয়ই অন্য তথ্যগুলো জানেন। কোথায় কেমনে কী হইছে সবই তো উনারা জানেন। তো সবকিছু মিলে তারা ভেরি হ্যাপি।’

‘এরপর তারা আমার সহযোগিতার কারণে ধন্যবাদ জানান। পরবর্তীতে সযোগিতা প্রয়োজন হলে করব কি না জানতে চান। আমি বলেছি যে কোনো সময় প্রয়োজন হলেই আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করব।’

ইমন বলেন, ‘বের হওয়ার পর আমি ফেসবুকে আলহামদুলিল্লাহ লিখেছি। মানুষজন যেগুলো বলতেছে- আমি এটা করি ওটা করি; তো সেটা যে আমি করি না তা প্রমাণ হবে ইনশাআল্লাহ।’

র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, সাম্প্রতিক অডিও ক্লিপ ফাঁসের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চিত্রনায়ক মামনুন হাসান ইমনকে র‍্যাব সদরদপ্তরে ডাকা হয়। সন্ধ্যা ৬টা থেকে টানা ৫ ঘণ্টা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে বেশকিছু চাঞ্চল্যকর পাওয়া গেছে। এসব তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।

ইমন জানিয়েছেন তার জ্ঞাতসারে অডিওটি ফাঁস হয়নি। গোটা ঘটনার বিষয়ে তদন্তে র‍্যাবকে সহয়তা করার কথা জানিয়েছেন ইমন।

এর আগে ইমনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। সোমবার রাতে মিন্টু রোডে অবস্থিত গোয়েন্দা কার্যালয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়টি স্বীকার করেছেন ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.